পেশা ও বৃত্তির মধ্যে পার্থক্য কি: পেশা শব্দটি ফারসি ভাষা থেকে বাংলায় এসেছে। এর আভিধানিক অর্থ বৃত্তি, যার  ইংরেজি অর্থ দাঁড়ায় ‘Occupation’। বৃত্তি বা Occupation বলতে জীবিকা বা জীবনধারণের উপায়কে বুঝায়।  কিন্তু পেশা বলতে বিশেষ বৃত্তিকে বুঝায়, যার ইংরেজি প্রতিশব্দ ‘ Profession ও Occupation সমার্থবোধক শব্দ হলেও এক নয়। সাধারণ অর্থে পেশা বলতে কোনো কাজ বা বৃত্তিকে বোঝায়। তবে সব জীবিকা বা জীবনধারণের উপায় পেশা নয়। যে জীবিকার্জনের জন্য দীর্ঘ সময়ব্যাপী সিলেবাস এর আওতায় তাত্ত্বিক শিক্ষা এবং ব্যবহারিক প্রশিক্ষণের প্রয়োজন তাই পেশা । আরও দেখুনঃ পড়াশোনা করার স্মার্ট কৌশল | পড়াশোনা করার ৮ টি সঠিক নিয়ম | টপার রা কিভাবে পড়াশোনা করে

পেশা ও বৃত্তির মধ্যে পার্থক্য কি

কোন বৃত্তিকে পেশা বলতে হলে তার মধ্যে কমপক্ষে পেশার দুটি প্রধান বৈশিষ্ট্য থাকতে হবে। যেমন –

১. পেশাগত কাজ প্রযুক্তিসম্পন্ন ও

Google News

২. পেশাদার কর্মীরা কতকগুলো পেশাগত নীতি ও মূল্যবোধ মেনে চলে।

পেশার সংজ্ঞা: পেশার সংজ্ঞা দিতে গিয়ে বিভিন্ন মনীষীগণ বিভিন্ন সংজ্ঞা দিয়েছেন। যা নিম্নে উল্লেখ করা হলো:

এ.ই.বেন এর ব্যাবস্থাপনা অভিধানের সংজ্ঞানুযায়ী,”Profession is a calling in which one professes to have a equired specialized knowledge which is used either in instructing, guiding or advising others.”

Wilbert E.More তাঁর ‘The Profession: Rule and Rules’ গ্রন্থে বলেছেন, পেশা হলো একটি সার্বক্ষণিক কর্ম, সেবাদানে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, সহযোগীদের নিয়ে আলাদা পরিচিতি এবং দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে স্বাতন্ত্র্যবোধ।” আরও দেখুনঃ সমাজকর্ম গবেষণার সংজ্ঞা | সমাজকর্মের গবেষণা কাকে বলে

পেশা ও বৃত্তির মধ্যে পার্থক্য: মানুষ তাদের কাজের মাধ্যমে যে জীবিকা নির্বাহ করে তাকে বৃত্তি বলে। এ দৃষ্টিকোণ থেকে পেশাও বৃত্তি।পেশা ও বৃত্তিকে ভিন্ন অর্থে ব্যবহার করা হলেও তাদের মাঝে মৌলিক পার্থক্য বিদ্যমান। নিম্নে পেশা ও বৃত্তির পার্থক্য তুলে ধরা হলো:

                           পেশা ও বৃত্তির মধ্যে পার্থক্য কি

 পেশা বৃত্তি
১. প্রত্যেক পেশার নিজস্ব জ্ঞান ভান্ডার রয়েছে।  যেমন-ডাক্তারি।   1.বৃত্তির কোন সুসংগঠিত জ্ঞানভান্ডার নেই। এর জন্য বিশেষ শিক্ষার প্রয়োজন হয় না। যেমন-কুলি। 
 ২.পেশাদার ব্যক্তিকে শিক্ষা এবং প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিশেষ নৈপুণ্য ও দক্ষতা অর্জন করতে হয়।২.বৃত্তির জন্য তাত্ত্বিক শিক্ষা ও ব্যবহারিক প্রশিক্ষণের প্রয়োজন হয় না।
৩. পেশাগত কাজ অবশ্যই প্রযুক্তিসম্পন্ন।  ৩. বৃত্তের কাজ প্রযুক্তি সম্পন্ন হতেও পারে আবার  নাও পারে।
৪.পেশার উন্নয়ন এবং স্বার্থ সংরক্ষণের জন্য প্রতিটি পেশারই পেশাগত প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ৪. বৃত্তির এ ধরনের কোনো প্রতিষ্ঠান নেই।
৫.পেশাদার কর্মীদের নিজ নিজ পেশায় দায়িত্ব ও কর্তব্য রয়েছে। জবাবদিহিতাও রয়েছে। ৫. বৃত্তিধারী ইচ্ছামতো কাজ করতে পারে। জবাবদিহিতা বোধও নেই।

পেশা ও বৃত্তির মধ্যে উপর্যুক্ত পার্থক্যসমূহ পরিলক্ষিত হলেও একথা সন্দেহাতীত ভাবে বলা যায় যে, পেশা একটি বৃত্তি। তবে সকল পেশা বৃত্তি হলেও সকল বৃত্তি পেশা নয়। বর্তমানে বাস্তবে দুটি চলমান রয়েছে। বৃত্তির কাজে নিয়োজিত বেশিরভাগই নিম্ন শ্রেণীর মানুষ।