بِسْمِ اللهِ الرَّحْمنِ الرَّحِيمِ
শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু

إِذَا السَّمَاء انفَطَرَتْ
যখন আকাশ বিদীর্ণ হবে,(সূরা ইনফিতার ৮২:১ )

وَإِذَا الْكَوَاكِبُ انتَثَرَتْ

খন নক্ষত্রসমূহ ঝরে পড়বে,(সূরা ইনফিতার ৮২:২ )

আরোঃ বাংলা উচ্চারণ সহ

وَإِذَا الْبِحَارُ فُجِّرَتْ
যখন সমুদ্রকে উত্তাল করে তোলা হবে,(সূরা ইনফিতার ৮২:৩ )

وَإِذَا الْقُبُورُ بُعْثِرَتْ
এবং যখন কবরসমূহ উম্মোচিত হবে,(সূরা ইনফিতার ৮২:৪ )

عَلِمَتْ نَفْسٌ مَّا قَدَّمَتْ وَأَخَّرَتْ
তখন প্রত্যেকে জেনে নিবে সে কি অগ্রে প্রেরণ করেছে এবং কি পশ্চাতে ছেড়ে এসেছে।(সূরা ইনফিতার ৮২:৫ )

يَا أَيُّهَا الْإِنسَانُ مَا غَرَّكَ بِرَبِّكَ الْكَرِيمِ
হে মানুষ, কিসে তোমাকে তোমার মহামহিম পালনকর্তা সম্পর্কে বিভ্রান্ত করল?(সূরা ইনফিতার ৮২:৬ )

الَّذِي خَلَقَكَ فَسَوَّاكَ فَعَدَلَكَ
যিনি তোমাকে সৃষ্টি করেছেন, অতঃপর তোমাকে সুবিন্যস্ত করেছেন এবং সুষম করেছেন।(সূরা ইনফিতার ৮২:৭ )

فِي أَيِّ صُورَةٍ مَّا شَاء رَكَّبَكَ
যিনি তোমাকে তাঁর ইচ্ছামত আকৃতিতে গঠন করেছেন।(সূরা ইনফিতার ৮২:৮ )

كَلَّا بَلْ تُكَذِّبُونَ بِالدِّينِ
কখনও বিভ্রান্ত হয়ো না; বরং তোমরা দান-প্রতিদা নকে মিথ্যা মনে কর।(সূরা ইনফিতার ৮২:৯ )

وَإِنَّ عَلَيْكُمْ لَحَافِظِينَ
অবশ্যই তোমাদের উপর তত্ত্বাবধায়ক নিযুক্ত আছে।(সূরা ইনফিতার ৮২:১০ )

كِرَامًا كَاتِبِينَ
সম্মানিত আমল লেখকবৃন্দ।(সূরা ইনফিতার ৮২:১১ )

يَعْلَمُونَ مَا تَفْعَلُونَ
তারা জানে যা তোমরা কর।(সূরা ইনফিতার ৮২:১২ )

إِنَّ الْأَبْرَارَ لَفِي نَعِيمٍ
সৎকর্মশীলগণ থাকবে জান্নাতে।(সূরা ইনফিতার ৮২:১৩ )

وَإِنَّ الْفُجَّارَ لَفِي جَحِيمٍ
এবং দুষ্কর্মীরা থাকবে জাহান্নামে;(সূরা ইনফিতার ৮২:১৪ )

يَصْلَوْنَهَا يَوْمَ الدِّينِ
তারা বিচার দিবসে তথায় প্রবেশ করবে।(সূরা ইনফিতার ৮২:১৫ )

وَمَا هُمْ عَنْهَا بِغَائِبِينَ
তারা সেখান থেকে পৃথক হবে না।(সূরা ইনফিতার ৮২:১৬ )

وَمَا أَدْرَاكَ مَا يَوْمُ الدِّينِ
আপনি জানেন, বিচার দিবস কি?(সূরা ইনফিতার ৮২:১৭ )

ثُمَّ مَا أَدْرَاكَ مَا يَوْمُ الدِّينِ
অতঃপর আপনি জানেন, বিচার দিবস কি?(সূরা ইনফিতার ৮২:১৮ )

يَوْمَ لَا تَمْلِكُ نَفْسٌ لِّنَفْسٍ شَيْئًا وَالْأَمْرُ يَوْمَئِذٍ لِلَّهِ
যেদিন কেউ কারও কোন উপকার করতে পারবে না এবং সেদিন সব কতৃত্ব হবে আল্লাহর।(সূরা ইনফিতার ৮২:১৯ )